গণপূর্ত অধিদপ্তর বাংলাদেশ সরকারের নির্মাণ সংস্থার পথিকৃত : প্রধান প্রকৌশলী

গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্ব পেয়েছেন হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক মোহাম্মদ শামিম আখতার। তাঁকে চলতি দায়িত্বে এই নিয়োগ দিয়ে ১৩ ডিসেম্বর গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়।

এদিকে গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসা মো. আশরাফুল আলমকে হাউজিং অ্যান্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটে প্রেষণে মহাপরিচালক হিসেবে শামিম আখতারের স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে।

গণপূর্ত অধিদপ্তর বাংলাদেশ সরকারের নির্মাণ সংস্থার পথিকৃত । তিনি বলেন,  এবং সরকারি প্রকল্পের ভবন নির্মাণে ভরসার স্থল। সরকারের নির্মাণ সংস্থার পাশাপাশি দেশের নির্মাণ শিল্পের গতি, মান ও কার্যক্রম পরিচালনায় নিয়ন্ত্রকের ভূমিকা পালন করে থাকে। এই বিভাগ টার্নকির ভিত্তিতে প্রকল্প সম্পন্ন করে যেমন: পানি সরবরাহ, পয়ঃনিষ্কাশন, অভ্যন্তরীণ সড়ক, বিদ্যুতায়ন, শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ, অগ্নি নির্বাপণ,আরবরিকালচার ইত্যাদি। ভবন নির্মাণ প্রকল্পের ধারণা থেকে সম্পন্ন করা পর্যন্ত স্থাপত্য বিভাগের সহায়তায় এটি পরামর্শ সেবাও প্রদান করে থাকে। ভবন নির্মাণের সকল বিষয়ে দক্ষ পরামর্শ সেবা এখানে পাওয়া যায়।

 

দায়িত্ব পাওয়ার পর এক ওয়েব বার্তায় নবনিযুক্ত  গণপূর্ত অধিদপ্তর এর প্রধান প্রকৌশলী বলেন, দেশব্যাপী অফিস কার্যক্রমের মাধ্যমে ভবন নির্মাণ ক্ষেত্রে সকল উঠতি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সক্ষম। এর সুযোগ্য, প্রশিক্ষিত এবং নিবেদিতপ্রাণ কর্মী বাহিনী দেশের একাধিক জটিল প্রকল্প সম্পন্ন করে সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। এই ২১ শতকে আমরা আইসিটির অগ্রযাত্রা থেকে নিজেদের গুটিয়ে রাখতে পারিনা, কারণ আইসিটি হলো আধুনিক ব্যবস্থা যাতে ই-গভর্নেন্সের ব্যবহারের মাধ্যমে সরকারি কাজে স্বচ্ছতা, দক্ষতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা যায়। তাই গণপূর্ত অধিদপ্তরের আইসিটি উন্নয়ন আমার কর্ম তালিকায় অগ্রাধিকার পাচ্ছে। এই সূত্রে কিছু ডাটাবেজ সফটওয়্যার উন্নয়নের সূচনা হতে যাচ্ছে। আমি আমার সহকর্মীদের অনুরোধ করছি তারা যেন কম্পিউটারে বিশেষ করে ডাটাবেজ সফটওয়্যার ব্যবহারে নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি করে।

 

তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে সংস্থাগুলো তাদের আইসিটি সেবা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে স্টেকহোল্ডারদের কাছে পৌছে দিচ্ছে। গণপূর্ত অধিদপ্তর  ২০০২ সাল থেকে তার ওয়েবসাইট পরিচালনা করে আসছে। আমার পর্যবেক্ষণ হলো এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নাগরিকরা এই অধিদপ্তর সম্পর্কে জানতে পারবে। এজন্য গণপূর্ত অধিদপ্তরের সিটিজেন চার্টার ওয়েবসাইটে রাখা আছে এবং আমি আশা করি এটি স্টেকহোল্ডারদের উন্নততর সেবা নিশ্চিত করার মাধ্যমে অধিদপ্তরের ভাবমূর্তি বৃদ্ধি করবে। আমি চাই এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ক্লায়েন্ট মন্ত্রণালয়সমূহ আমাদের ডাটাবেজ সিস্টেমে সংযোগ স্থাপন করে তাদের বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করতে পারবে।

 

সংক্ষেপে জীবনবৃত্তান্ত

মোহাম্মদ শামীম আখতার রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শিক্ষাজীবনে তিনি রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ থেকে ১৯৮২ সালে এসএসসি এবং ১৯৮৪ সালে এইচএসসি পাস করেন। তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে ১৯৯১ সালে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং (সিভিল)  ডিগ্রি লাভ করেন।  পরবর্তিতে তিনি আইসিটি বিষয়ে ২০০২ সালে বুয়েট হতে পোষ্ট গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা এবং ২০০৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে ফিন্যান্স বিষয়ে এমবিএ ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি বিসিএস (পাবলিক ওয়ার্কস) ক্যাডারে ১৫ তম (১৯৯৫) ব্যাচের একজন কর্মকর্তা।

 

তিনি ১৯৯৮ সালে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী, ২০০৮ সালে নির্বাহী প্রকৌশলী, ২০১৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ও ২০১৮ সালে অতিঃ প্রধান প্রকৌশলী   পদে পদোন্নতি লাভ করেন। দীর্ঘ কর্মজীবনে সততা, দক্ষতা ও নিষ্ঠার সাথে সরকারি দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে তিনি চাকরি ক্ষেত্রে অনেক সুনাম অর্জন করেন। তিনি বিগত ০৮/০৫/২০১৮ তারিখে  হাউজিং এন্ড বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক হিসেবে যোগদান কর এবং একই প্রতিষ্ঠানে পদোন্নতি পেয়ে মহাপরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী হিসেবে ১৪/১২/২০২০ তারিখে দায়িত্বভার গ্রহন করেন।

 

চাকুরিরত অবস্থায় তিনি দেশে-বিদেশে বিভিন্ন খন্ডকালীন ও দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। এছাড়া  তিনি  সৌদিআরব, ইন্ডিয়া, উজবেকিস্তান, কম্বোডিয়া, মালয়শিয়া এবং সিঙ্গাপুর সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভ্রমন করেছেন।

 

তিনি ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (IEB)- এর আজীবন ফেলো।

 

চাকুরি ছাড়াও তিনি বহু সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুই কন্যা সন্তানের জনক।  প্রেস বিজ্ঞপ্তি

     More News Of This Category

Our Like Page